ঢাকাশনিবার , ৪ মার্চ ২০২৩
  • অন্যান্য
আজকের সর্বশেষ সবখবর

চিকিৎসাকে সহজতর করেছে শক্তিশালী অনেক অ্যান্টিবায়োটিকের আবিষ্কার

অনলাইন ডেস্ক
মার্চ ৪, ২০২৩ ৫:২৩ পূর্বাহ্ণ । ৪৯ জন
অ্যান্টিবায়োটিকের অপ্রয়োজনীয় ও অতি ব্যবহার

বিভিন্ন রোগের চিকিৎসাকে সহজতর করেছে শক্তিশালী অনেক অ্যান্টিবায়োটিকের আবিষ্কার। তবে সময়ের সঙ্গে সঙ্গে অ্যান্টিবায়োটিক জাতীয় ওষুধকে অকার্যকর করার জন্য জীবাণুরাও নিজেদের করেছে উন্নত। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সংজ্ঞা মতে, অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল রেজিস্ট্যান্স তখন বলা হয় যখন ব্যাকটেরিয়া, ছত্রাক, ভাইরাস ও অন্যান্য পরজীবী জীবাণু সময়ের সঙ্গে সঙ্গে এমনভাবে পরিবর্তিত হয় যে অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল ওষুধ এদের আর ধ্বংস করতে পারে না। এতে যেকোনো সংক্রমণের চিকিৎসা কঠিন হয়ে পড়ে এবং জটিল ও প্রাণঘাতী রোগ দ্রুত বিস্তার লাভ করে।দেশে অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল প্রতিরোধী সংক্রমণের সঠিক সংখ্যা পাওয়া যায় না। তবে এই সংখ্যা অত্যন্ত উদ্বেগজনক হবে বলে বিশেষজ্ঞরা মনে করেন। দেশে পরিচালিত বিভিন্ন গবেষণায় মৎস্য খাদ্য, পশু খাদ্য ও কৃষিক্ষেত্রে অ্যান্টিমাইক্রোবিয়ালের যথেচ্ছ ব্যবহারের চিত্র উঠে এসেছে।

কারণঅ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল রেজিস্ট্যান্স একটি প্রাকৃতিক প্রক্রিয়া। অন্যান্য জীবের মতো ব্যাকটেরিয়াও বেঁচে থাকার জন্য নিজেকে অভিযোজিত করে অ্যান্টিবায়োটিকের বিরুদ্ধে কার্যকর প্রতিরোধ গড়ে তোলে। পরবর্তী সময়ে এই প্রতিরোধক্ষমতা ‘ডিএনএ’-এর মাধ্যমে পরবর্তী প্রজন্মে বাহিত হয়। এই পরিবর্তিত জীবাণু এরপর ওষুধ প্রতিরোধী সংক্রমণ ঘটাতে পারে। অ্যান্টিবায়োটিক প্রতিরোধী ইনফেকশন সৃষ্টিকারী ব্যাকটেরিয়ার উদ্ভব একটি স্বাভাবিক প্রাকৃতিক প্রক্রিয়া হলেও এর জন্য অনেক কারণ দায়ী। আর সেগুলো হচ্ছে-

–   অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল ওষুধের যথেচ্ছ, অপ্রয়োজনীয় ও অতি ব্যবহার।