ঢাকামঙ্গলবার , ৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
  • অন্যান্য

মিয়ানমার জান্তার আরও দুটি ঘাঁটি আরাকান আর্মির দখলে

অনলাইন ডেস্ক
ফেব্রুয়ারি ৬, ২০২৪ ৬:৪০ অপরাহ্ণ । ২৩ জন

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে তীব্র লড়াইয়ের মধ্যে সামরিক জান্তার আরও দুটি ঘাঁটি দখল করেছে সশস্ত্র গোষ্ঠী আরাকান আর্মি (এএ)। তারা বলছে, বেশ কয়েকদিনের লড়াইয়ের পর সোমবার (৫ ফেব্রুয়ারি) সকালে ঐতিহাসিক ম্রাউক উ এবং কিয়াউক্তাউ উপশহরে অবস্থিত মিয়ানমারের সামরিক বাহিনীর লাইট ইনফ্যান্ট্রি ব্যাটালিয়ন এলআইবি ৩৭৮ এর সদর দপ্তর দখল করে নিয়েছে তারা।

 এর আগে গত মঙ্গলবার (৩০ জানুয়ারি) আরাকান আর্মি এলআইবি ৩৪০ সদর দপ্তর দখল করে এবং এলআইবি ৩৭৭ ঘাঁটিতে হামলা চালায়। আরাকান আর্মি বলছে এই তিনটি ব্যাটালিয়ন ব্যবহার করে জান্তা বাহিনী ম্রাউক উ রাজ্যের ঐতিহাসিক রাজধানী, ম্রাউক উ প্রত্নতাত্ত্বিক যাদুঘর, শহরের আবাসিক এলাকা এবং আশেপাশের গ্রামগুলোতে গোলাবর্ষণ করছিল। খবর ইরাবতী।

গত ২ ফেব্রুয়ারি আরাকান আর্মি কিয়াউক্তাউ উপশহরে এলআইবি ৩৭৬ সদর দপ্তর দখল করে এবং মিনবিয়া, কিয়াউক্তাউ এবং ম্রাউক উ উপশহরের অন্যান্য জান্তা ঘাঁটিগুলিতে আক্রমণ শুরু করে। রাথেদাউং, পোন্নাগিউন, রামরি এবং অ্যান শহরে আকাশ ও নৌপথে সংঘর্ষ অব্যাহত রয়েছে।

বাংলাদেশ সীমান্তে মংডু উপশহরের টাং পিয়োতে সীমান্ত ফাঁড়িতেও হামলা চলিয়েছে আরাকান আর্মি। এই হামলার মুখে গত রোবার ও সোমবার (৪ ও ৫ ফেব্রুয়ারি) প্রায় ৯০ জন জান্তা সেনা সীমান্ত পেরিয়ে পালিয়ে বাংলাদেশে আসে।

গত ১৩ নভেম্বর থেকে রাখাইন এবং দক্ষিণ চিন রাজ্যের পার্শ্ববর্তী পালেতওয়া উপশহরে জান্তার সীমান্ত ফাঁড়িগুলোতে হামলা চলিয়েছে আসছে আরাকান আর্মি। তারা বলছে, রাখাইনের রাজধানী সিত্তওয়ের কাছে পাউক্তাও শহর এবং পুরো পালেতোয়া উপশহরে অবস্থিত ১৭০টি সামরিক ফাঁড়ি এখন তাদের দখলে রয়েছে।