ঢাকাশনিবার , ২৯ এপ্রিল ২০২৩
  • অন্যান্য

প্রতারণার অভিযোগ উঠল শাহরুখের বিরুদ্ধে

অনলাইন ডেস্ক
এপ্রিল ২৯, ২০২৩ ১:১৭ অপরাহ্ণ । ৭৫ জন
ছবি : সংগৃহীত

প্রতারণার অভিযোগ উঠল বলিউড কিং শাহরুখ খান ও একটি বেসরকারি কোচিং সংস্থা কর্মীর বিরুদ্ধে। ইন্ডিয়ান অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ সার্ভিস (আইএএস) অফিসার হতে চাওয়া তরুণীর প্রত্যাশা পূরণ হয়নি। তার জেরেই এই অভিযোগ। শুধু তাই নয়, এই অভিযোগের ভিত্তিতে তাদেরকে ক্ষতিপূরণের নির্দেশও দিয়েছে মধ্যপ্রদেশের মধ্যপ্রদেশের ক্রেতাসুরক্ষা প্যানেল।

এ নিয়ে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম সংবাদ প্রতিদিনের এক প্রতিবেদনে জানানো হয়, বেসরকারি ওই সংস্থা সাধারণত অনলাইনে কোচিং করায়। যার বিজ্ঞাপনে দেখা যায় শাহরুখ খানকে। জানা গেছে, সেই কারণেই শাহরুখ ও ওই সংস্থার কর্মীর বিরুদ্ধে প্রতারণা ও অনৈতিকভাবে ব্যবসা করার অভিযোগ এনেছেন প্রিয়াংকা দীক্ষিত নামের এক তরুণী।

আইএএস অফিসার হওয়ার স্বপ্ন ছিল প্রিয়াংকার। এই জন্য তিনি সংস্থার কোচিংয়ের জন্য এক লাখ ৮ রুপি জমা দিয়েছিলেন। প্রিয়াংকার অভিযোগ, ২০২১ সালের ২৭ জানুয়ারি তিনি এই জমা অর্থ ফেরত চেয়ে অ্যাডমিশন বাতিল করার আবেদন জানিয়েছিলেন। কিন্তু একাধিকবার তা বলা সত্ত্বেও সংস্থার পক্ষ থেকে টাকা ফেরত দেওয়া হয়নি। এর জেরেই মধ্যপ্রদেশের ডিস্ট্রিক্ট কনজিউমার রিড্রেসার কমিশনে অভিযোগ করেন তরুণী।

প্রিয়াংকার অভিযোগ, শাহরুখের বিজ্ঞাপন দেখে অনুপ্রাণিত হয়েই তিনি ওই সংস্থায় নাম নথিভূক্ত করেছিলেন। তাই শাহরুখের বিরুদ্ধেও অভিযোগ করা হয়েছে। অ্যাডমিশন ফি-র পাশাপাশি ক্ষতিপূরণও চেয়েছিলেন প্রিয়াংকা। মধ্যপ্রদেশের ক্রেতা সুরক্ষা প্যানেল তা মেনে নিয়েছে। অ্যাডমিশনের এক লাখ ৮ হাজার রুপির পাশাপাশি তার ১২ শতাংশ সুদও দেয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এছাড়া মামলার খরচ হিসেবে প্রিয়াংকাকে আরও পাঁচ হাজার রুপি ও ক্ষতিপূরণ বাবদ পঞ্চাশ হাজার রুপিও দিতে বলা হয়েছে।

ও একটি বেসরকারি কোচিং সংস্থা কর্মীর বিরুদ্ধে। ইন্ডিয়ান অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ সার্ভিস (আইএএস) অফিসার হতে চাওয়া তরুণীর প্রত্যাশা পূরণ হয়নি। তার জেরেই এই অভিযোগ। শুধু তাই নয়, এই অভিযোগের ভিত্তিতে তাদেরকে ক্ষতিপূরণের নির্দেশও দিয়েছে মধ্যপ্রদেশের মধ্যপ্রদেশের ক্রেতাসুরক্ষা প্যানেল।

এ নিয়ে ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে এক প্রতিবেদনে জানানো হয়, বেসরকারি ওই সংস্থা সাধারণত অনলাইনে কোচিং করায়। যার বিজ্ঞাপনে দেখা যায় শাহরুখ খানকে। জানা গেছে, সেই কারণেই শাহরুখ ও ওই সংস্থার কর্মীর বিরুদ্ধে প্রতারণা ও অনৈতিকভাবে ব্যবসা করার অভিযোগ এনেছেন প্রিয়াংকা দীক্ষিত নামের এক তরুণী।

আইএএস অফিসার হওয়ার স্বপ্ন ছিল প্রিয়াংকার। এই জন্য তিনি সংস্থার কোচিংয়ের জন্য এক লাখ ৮ রুপি জমা দিয়েছিলেন। প্রিয়াংকার অভিযোগ, ২০২১ সালের ২৭ জানুয়ারি তিনি এই জমা অর্থ ফেরত চেয়ে অ্যাডমিশন বাতিল করার আবেদন জানিয়েছিলেন। কিন্তু একাধিকবার তা বলা সত্ত্বেও সংস্থার পক্ষ থেকে টাকা ফেরত দেওয়া হয়নি। এর জেরেই মধ্যপ্রদেশের ডিস্ট্রিক্ট কনজিউমার রিড্রেসার কমিশনে অভিযোগ করেন তরুণী।

প্রিয়াংকার অভিযোগ, শাহরুখের বিজ্ঞাপন দেখে অনুপ্রাণিত হয়েই তিনি ওই সংস্থায় নাম নথিভূক্ত করেছিলেন। তাই শাহরুখের বিরুদ্ধেও অভিযোগ করা হয়েছে। অ্যাডমিশন ফি-র পাশাপাশি ক্ষতিপূরণও চেয়েছিলেন প্রিয়াংকা। মধ্যপ্রদেশের ক্রেতা সুরক্ষা প্যানেল তা মেনে নিয়েছে। অ্যাডমিশনের এক লাখ ৮ হাজার রুপির পাশাপাশি তার ১২ শতাংশ সুদও দেয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এছাড়া মামলার খরচ হিসেবে প্রিয়াংকাকে আরও পাঁচ হাজার রুপি ও ক্ষতিপূরণ বাবদ পঞ্চাশ হাজার রুপিও দিতে বলা হয়েছে।