ঢাকাবুধবার , ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
  • অন্যান্য

পণ্য পরিবহনে চাঁদাবাজি বন্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে: এফবিসিসিআই সভাপতি

অনলাইন ডেস্ক
ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০২৪ ৬:৩৩ অপরাহ্ণ । ১৯ জন

পণ্য পরিবহনের চাঁদাবাজি বন্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলেছেন ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআইয়ের সভাপতি মাহবুবুল আলম। তিনি ব্যবসায়ীদের উদ্দেশে বলেছেন, পণ্য পরিবহন কিংবা ওঠানো-নামানোর সময় কোথাও চাঁদাবাজি হলে জানাবেন। এফবিসিসিআইয়ের হটলাইন কিংবা ডেস্ক থাকবে। চাঁদাবাজদের বিরুদ্ধে আমরা সোচ্চার থাকব। কাউকে ছাড় দেব না। দরকার হলে সরকারের উচ্চপর্যায়ের সঙ্গে কথা বলে সমস্যার সমাধান করব এফবিসিসিআই আয়োজিত রমজানে নিত্যপণ্যের উৎপাদন, আমদানি, মজুত, সরবরাহ ও মূল্য পরিস্থিতি নিয়ে মতবিনিময় সভায় এসব কথা বলেন সংগঠনের সভাপতি মাহবুবুল আলম। রাজধানীর মতিঝিলে এফবিসিসিআই আইকন ভবনে আজ বুধবার আয়োজিত সভায় বড় ভোগ্যপণ্য কোম্পানির প্রতিনিধি, পাইকারি ও খুচরা ব্যবসায়ী, ঢাকার বিভিন্ন বাজার কমিটির নেতা, বাংলাদেশ ব্যাংক, প্রতিযোগিতা কমিশনসহ সরকারের বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

মাহবুবুল আলম বলেন, রমজানে পণ্যের সরবরাহ ঠিক রাখা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। কোথাও যেন কৃত্রিম সংকট তৈরি না হয় সে জন্য বিভিন্ন বাণিজ্য সংগঠন ও বাজার কমিটির নেতাদের দায়িত্ব নিতে হবে। তাদের নিয়মিত বাজার তদারকি করতে হবে। তিনি আরও বলেন, ‘আমরা ব্যবসা করি লাভ করার জন্য, তবে সেই লাভ হতে হবে ন্যায্য।’ রমজান মাসে ‘বিক্রি বেশি, মুনাফা কম’—এই নীতিতে ব্যবসা করলে ব্যবসায়ী, সমাজ ও দেশ লাভবান হবে বলে মন্তব্য করেন তিনি।ব্যবসায়ীদের উদ্দেশে এফবিসিসিআই সভাপতি আরও বলেন, কর দিচ্ছেন, ভ্যাট দিচ্ছেন। তারপরও দিন শেষে একটি কথা থেকে যায়। সেটা হলো, ব্যবসায়ীরা অতি মুনাফা করছেন। এসব যেন আর না হয়—সে জন্য আমাদের মনোভাব পরিবর্তন করতে হবে। সংকট আছে। যেমন বাজারে ডলার-সংকট আছে, ব্যাংকে গেলে সময়মতো ঋণপত্র খোলা যায় না। এটা ঠিক যে আমরা চ্যালেঞ্জের মধ্যে ব্যবসা করি। তবে আমাদের যেটা করতে হবে সেটা হচ্ছে, বাজার ঠিক রাখতে হবে। পাইকারি বাজারের ৮০০ টাকার দামের পাঞ্জাবি খুচরা বাজারে গিয়ে যেন ৫ হাজার টাকা হয়ে না যায়, সে বিষয়ে খেয়াল রাখতে হবে।