ঢাকাবৃহস্পতিবার , ২ মার্চ ২০২৩
  • অন্যান্য
আজকের সর্বশেষ সবখবর

নির্বাচনের জাতীয় ঐক্য এখন সময়ের দাবি

অনলাইন ডেস্ক
মার্চ ২, ২০২৩ ১০:১৯ পূর্বাহ্ণ । ৩১ জন

আসন্ন নির্বাচনকে সামনে রেখে জাতীয় ঐক্য এখন সময়ের দাবি বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় পার্টির কো-চেয়ারম্যান ও সাবেক মন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার। তিনি বলেছেন, পৃথিবীতে অনৈক্য অসহিষ্ণুতা, মতভেদ, দূরত্ব, কোথাও শান্তি আনতে পারে না। এটার উদাহরণ রাশিয়া ও ইউক্রেন যুদ্ধ। সমঝোতার পথে শান্তি আসে। এটাই প্রমাণিত। গতকাল দুপুরে রাজধানীর গুলশানের নিজ বাসভবনে  দেয়া একান্ত সাক্ষাৎকারে তিনি এসব কথা বলেন।

এক প্রশ্নের জবাবে সাবেক পাট ও বস্ত্রমন্ত্রী বলেন, চায়না একটা বৃহত্তর শক্তি। মহাশক্তিধরদের মধ্যে অনেক ঐক্য আছে। চীনের সরকারপ্রধান যুদ্ধ বন্ধের জন্য গত কয়েকদিন আগে ডাক দিয়েছেন। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র তা নাচক করেছেন। তার পছন্দ-অপছন্দ থাকলেও সময়ের ব্যবধানে শান্তির পথে আসতে হবে। আরেক প্রশ্নে জবাবে সাবেক জাপা মহাসচিব বলেন, বাংলাদেশের রাজনীতিতে গণতান্ত্রিক চর্চার মতপার্থক্য থাকাই স্বাভাবিক। তবে নির্বাচনকে সামনে রেখে সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ, একটি গ্রহণযোগ্য নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার জন্য, জাতীয় স্বার্থে গোলটেবিল বসে আলোচনা সাপেক্ষে একমতে আসতে হবে। এবং এটাই জাতির প্রত্যাশা।

 

 

সাবেক যুব ও ক্রীড়ামন্ত্রী এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার বলেন, পার্টি চেয়ারম্যান দলের নেতাকর্মীদের জন্য শীতল ছাঁয়া। দলের নেতাকর্মীরা জাপা চেয়ারম্যান জিএম কাদেরের এর নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ আছেন। নির্বাচন ঘনিয়ে আসছে এর মধ্যেই জাতীয় পার্টিকে আরো শক্তিশালী করতে হবে। গোলাম মোহাম্মদ কাদের এর নেতৃত্বে জাতীয় পার্টি অভিষ্ঠ লক্ষ্যে এগিয়ে যাবে। বিগত দিনের কথা স্মরণ করিয়ে সাবেক কৃষিমন্ত্রী বলেন, এক দল ক্ষমতায় থাকায় মানুষ লাশ হয়েছে আর এক দলের ক্ষমতা থাকায় হচ্ছে হত্যা গুম, নারী ধর্ষণ, মারামারি-হানাহানি ঘটিয়ে আসছে। যা ইতিহাস কাউকে ক্ষমা করে না। দুই দলের ক্ষমতায় থাকা আর ক্ষমতায় যাওয়া নিয়ে নিরাপত্তাহীনতা ও সংশয় দেখা দিয়েছে।

জনগণের মনে এরশাদ সরকারের স্বর্ণালি যুগের কথা বারবার স্মরণ করিয়ে মন্ত্রীর পদ মর্দাযা সাবেক রাষ্ট্রপতির উপদেষ্টা বলেন, জাতীয় পার্টির ওপর মানুষের আস্থা বেড়ে গেছে। অনেকে বলে জাতীয় পার্টি ছাড়া কেউ সরকার গঠন করতে পারবে না। দেশের উন্নয়ন করতে হলে সরকারপ্রধান হতে হয় আর তা ছাড়া উন্নয়ন সম্ভব নয়। আগামী নির্বাচনকে সামনে রেখে সংগঠন করা, সংগঠনকে সুসংগঠিত করা এবং শক্তিশালী করা দলের সকলের নৈতিক দায়িত্ব ও কর্তব্য বলে মন্তব্য করে সাবেক এই হুইপ।

মরহুম সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের ঘনিষ্ঠতম হিসেবে পরিচিত পাওয়া জাপার সাবেক এই মহাসচিব বলেন, দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি, চালের দামসহ সবকিছুই সাধারণ মানুষের ক্রয়ক্ষমতার বাইরে। জাতীয় পার্টি সরকারের আমলে সব কিছুই ছিল সহনীয় পর্যায়। তিনি বিশ্বাস করেন রমজানের আগেই সব কিছু সরকার মানুষের ক্রয় ক্ষমতার মধ্যে রাখবেন। আরেক প্রশ্নে জবাবে এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার বলেন, আমরা বিশ্বাস করি সরকার আসবে এবং যাবে গণতান্ত্রিক নিয়মে। জাতীয় পার্টি লাশের রাজনীতি করে না, গুম, হত্যা, ধর্ষণের রাজনীতি করে না। আমরা গণতন্ত্রের রাজনীতিতে বিশ্বাস করে।

 

 

বিএনপি দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ না নিলে জাতীয় পার্টি এককভাবে’ নির্বাচন করার প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছে মন্তব্য করে অতীতের তিনটি সরকারের সাবেক মন্ত্রী এবং জাতীয় পার্টির সাবেক মহাসচিব বলেন, আগামী সংসদ নির্বাচনে জাতীয় পার্টি ক্ষমতার অন্যতম প্রতিদ্বন্দী হিসেবে মাঠে থাকবে। আর এ কারণেই প্রতিদিন বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতা-কর্মীরা জাতীয় পার্টির পতাকাতলে সমবেত হচ্ছে। এটা প্রমাণিত হয়েছে যে জাতীয় পার্টিকে ছাড়া কেউই সরকার গঠন করতে পারবে না।