ঢাকাশনিবার , ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
  • অন্যান্য

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে মাদকসেবনে বাধা দেয়ায় কলেজ পড়ুয়া এক শিক্ষার্থীর

অনলাইন ডেস্ক
ফেব্রুয়ারি ১৮, ২০২৩ ৫:৩৩ পূর্বাহ্ণ । ৮৬ জন
মুরগির খামারে আগুন

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে মাদকসেবনে বাধা দেয়ায় কলেজ পড়ুয়া এক শিক্ষার্থীর দেয়ায় কলেজ পড়ুয়া এক শিক্ষার্থীর দেয়ায় কলেজ পড়ুয়া এক শিক্ষার্থীরনারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে মাদকসেবনে বাধা দেয়ায় কলেজ পড়ুয়া এক শিক্ষার্থীর মাদকসেবনে বাধা দেয়ায় কলেজ পড়ুয়া এক শিক্ষার্থীর মুরগির খামারে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। এতে খামারসহ সেখানে থাকা দুই হাজার মুরগির বাচ্চা পুড়ে ছাই হয়ে গেছে।

এ ঘটনায় থানা পুলিশের কোনো ধরনের সহায়তা পাচ্ছেন না বলে অভিযোগ ভুক্তভোগী পরিবারের। গত বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার সদর ইউনিয়নের দক্ষিণবাগ এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। মুরগির খামারের মালিক শান্ত সরকার জানায়, তিনি সরকারি মুড়াপাড়া কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী। বাবা পরিত্যাগ করায় শান্তসহ তার মা দক্ষিণবাগ এলাকায় একটি নির্জনস্থানে ৪ শতাংশ জমিতে বসবাস করে আসছিল।

এনজিও থেকে ঋণ নিয়ে সেখানে সেমিপাকা টিনের দোচালা ঘরে পোল্ট্রি ফার্ম গড়ে তোলেন শান্ত। খামারের আয় থেকে তিনি তার লেখাপড়াসহ মায়ের ভরণপোষণ করতেন। দীর্ঘদিন ধরে তাদের বসতঘরের পাশে একটি ছোট ঘরে স্থানীয় রমন সরকার, সাইফুল ও শাহীন নিষেধ করা সত্ত্বেও প্রতিনিয়ত মাদকসেবন করে আসছে। মাদকসেবনে বাধা দেয়ায় বিভিন্ন ভাবে শান্ত ও তার মাকে হুমকি দেয় তারা।

এদিকে গত বুধবার মাদকসেবনের ঘরটি শান্ত বন্ধ করে দেয়ায় ক্ষিপ্ত হয় মাদকসেবীরা। এর জেরে গত বৃহস্পতিবার রাতে তারা মুরগির খামারে আগুন ধরিয়ে দেয়। খামারে আগুন দেখে শান্ত ও তার মা চিৎকার করলে আশেপাশের লোকজন এসে চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। ততক্ষণে আগুনে পুড়ে খামারে থাকা দুই হাজার মুরগি পুড়ে ছাই হয়ে যায়।

এতে কমপক্ষে ৬ লাখ টাকার ক্ষতি সাধন হয়েছে বলে দাবি করেছে খামার মালিক।  এদিকে থানায় লিখিতভাবে অভিযোগ দায়ের করলেও পুলিশ কোনো সহায়তা করছে না বলে দাবি করেছেন ক্ষতিগ্রস্ত খামার মালিক ও তার পরিবারের লোকজন। উল্টো আসামিদের পক্ষ নিয়ে তাদেরকে পুলিশ হয়রানি করছে বলে অভিযোগ করেন তারা। তবে এই অভিযোগ অস্বীকার করে রূপগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) আতাউর রহমান বলেন, অভিযোগের তদন্ত চলছে। তদন্ত পরবর্তী ঘটনার সত্যতা পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।