ঢাকাবুধবার , ৩ মে ২০২৩
  • অন্যান্য

একজোট হয়ে দাবি কঙ্গনা রানাউতকে বয়কট করার

admin
মে ৩, ২০২৩ ১০:২৬ পূর্বাহ্ণ । ১৩৫ জন

‘অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউতকে বয়কট করা হোক’। একজোট হয়ে এমন দাবি তুলেছেন পাঞ্জাবের অভিনয়শিল্পীরা। ভারতে সম্প্রতি পাস হওয়া নয়া কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে ‘দিল্লি চলো’ আন্দোলন শুরু হয়েছে গোটা দেশে। পাঞ্জাব ও হরিয়ানার কৃষকদের স্লোগানে গমগম করছে দিল্লির আকাশ।

বিশেষ করে পাঞ্জাবের অভিনয়শিল্পীরা সমান্তরাল ঝড় তুলেছেন নেটদুনিয়ায়। তারই ফলশ্রুতিতে শুরু হয়েছে ‘বয়কট কঙ্গনা’ আন্দোলন। কিন্তু কেন? কঙ্গনার দোষ কী? কারণ ২৭ সেপ্টেম্বর কৃষি আইন পাস হওয়ার পর যখন আন্দোলন শুরু হয়, তখন সেই আন্দোলনকারীদের ‘দেশদ্রোহী’ বলে দাগিয়ে দেন কঙ্গনা।

একই ইস্যুতে সম্প্রতি আবারও মুখ খোলেন নায়িকা। টুইটারে তিনি লেখেন, ‘লজ্জার ব্যাপার। কৃষকদের নামে যে যার আখের গোছাচ্ছে। আশা করি, দেশদ্রোহীরা যাতে সুযোগ নিতে না পারে, সেদিকে খেয়াল রাখবে আমাদের সরকার। তার ফলে শাহিনবাগের মতো আরও একটা হিংসার সূত্রপাত ঘটবে না। রক্তলোভীদের দল ও টুকরে গ্যাংকে তাদের স্বার্থসিদ্ধি করার থেকে আটকানো উচিত।’

এ ছাড়া কঙ্গনা ‘শাহিনবাগ’ খ্যাত ৮২ বছরের বিলকিস নামে এক বৃদ্ধাকে নিয়ে একটি পোস্ট দেন। যেখানে তিনি দাবি করেন, বিলকিসও এই আন্দোলনে হাঁটছেন। ১০০ টাকার বিনিময়ে নাকি বিভিন্ন প্রতিবাদে এদেরকে রাস্তায় নামানো হয়।

এর পাল্টা জবাবে পাঞ্জাবি অভিনেত্রী শরগুন মেহতা লিখেছেন, ‘যেভাবে আপনি নিজের বক্তব্য পেশ করতে পারেন, এদেরও সেই অধিকার রয়েছে। পার্থক্য এটুকুই যে, আপনি কোনো কারণ ছাড়াই কথা বলেন, আর আমাদের কৃষকবন্ধুরা নিজেদের অধিকারের জন্য মুখ খোলেন।’

মডেল, অভিনেত্রী, গায়িকা হিমাংশী খুরানাও চুপ থাকেননি। কঙ্গনার টুইটটিকে ‘ধান্দাবাজ’ বলে কটাক্ষ করেছেন তিনি। তার মতে, মানুষকে প্রভাবিত করার জন্য এভাবে লিখেছেন কঙ্গনা। এমনকি, বৃদ্ধা বিলকিসকে নিয়ে কঙ্গনা যা লিখেছেন, সেটিকে ‘ভুয়া তথ্য’ বলে দাবি করেছেন খুরানা।

এছাড়া এমি ভর্ক এবং সুখেও কঙ্গনাকে ‘বয়কট’ করার দাবি তুলেছেন। সুখে তো একেবারে কঙ্গনার প্রোফাইল রিপোর্টই করে দিয়েছেন। সেটির একটি ভিডিও করে টুইটও করেছেন তিনি।