ঢাকাবৃহস্পতিবার , ১৮ মে ২০২৩
  • অন্যান্য

৪৫তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা আগামীকাল

অনলাইন ডেস্ক
মে ১৮, ২০২৩ ৩:০৭ অপরাহ্ণ । ১০৬ জন
ছবি : সংগৃহীত

৪৫তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা আগামীকাল শুক্রবার। এ পরীক্ষার আসনবিন্যাস, সময়সূচি ও পরীক্ষা পরিচালনার নির্দেশনা প্রকাশ করেছে সরকারি কর্ম কমিশন (পিএসসি)। পিএসসির এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, আগামীকাল শুক্রবার ঢাকা, চট্টগ্রাম, রাজশাহী, খুলনা, বরিশাল, সিলেট, রংপুর ও ময়মনসিংহ বিভাগে একযোগে প্রিলিমিনারি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত ২০০ নম্বরের এ পরীক্ষা হবে। পরীক্ষার্থীদের সকাল সাড়ে ৮টা থেকে ৯টা ২৫ মিনিটের মধ্যে আসন গ্রহণ করতে হবে।

প্রার্থীদের যা করতে হবে
  • ১. সকাল সাড়ে ৮টা থেকে ৯টা ২৫ মিনিটের মধ্যে প্রার্থীদের নির্ধারিত পরীক্ষা হলে নিজ নিজ পরীক্ষা কক্ষে প্রবেশ করে নির্দিষ্ট আসন গ্রহণ করতে হবে। পরীক্ষার হলে প্রবেশের সময় প্রার্থীদের অবশ্যই স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে নির্দিষ্ট শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে।
  • ২. সকাল সাড়ে ৯টা থেকে ৯টা ৫৫ মিনিটের মধ্যে প্রার্থীদের মধ্যে উত্তরপত্র বিতরণ করা হবে। উত্তরপত্রের চারটি সেট থাকবে, যেমন সেট ১, ২, ৩ ও ৪। প্রার্থীরা উত্তরপত্রে নিজ জেলা ও রেজিস্ট্রেশন নম্বর লিখবেন এবং রেজিস্ট্রেশন নম্বরের সংশ্লিষ্ট বৃত্তগুলো কালো কালির বলপয়েন্ট কলম দিয়ে পূরণ করবেন। প্রার্থীরা হাজিরা তালিকায় স্বাক্ষর করবেন। এ সময় প্রবেশপত্র টেবিলের ওপর খুলে রাখতে হবে। প্রবেশপত্রের ছবি ও স্বাক্ষরের সঙ্গে হাজিরা তালিকার ছবি ও স্বাক্ষর মিলিয়ে দেখা হবে, গরমিল পাওয়া গেলে বহিষ্কারসহ যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
৪৫তম বিসিএস প্রিলিমিনারি পরীক্ষার হলে করণীয়
  • ৩. সকাল ১০টায় প্রার্থীদের মধ্যে প্রশ্নপত্র বিতরণ করা হবে। উত্তরপত্রের অনুরূপ প্রশ্নপত্রেরও চারটি সেট থাকবে, যেমন সেট ১, ২, ৩ ও ৪। প্রার্থী যে সেট নম্বরের উত্তরপত্র পাবেন, তাঁকে সে সেট নম্বরের প্রশ্নপত্র দেওয়া হবে। উত্তরপত্রের সেট নম্বর এবং প্রশ্নপত্রের সেট নম্বর এক ও অভিন্ন হতে হবে। বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে প্রার্থীরা উত্তরদান শুরু করবেন।
  • ৪. দুপুর ১২টায় পরীক্ষা শেষ হবে। প্রার্থীরা নিজ নিজ আসনে অবস্থান করবেন। পরিদর্শকেরা উত্তরপত্র সংগ্রহ করবেন। উত্তরপত্র সংগ্রহ করে বুঝে নেওয়ার পর প্রার্থীরা স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে নির্দিষ্ট শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে ধীরে ধীরে পরীক্ষাকক্ষ ত্যাগ করবেন। প্রার্থীরা প্রশ্নপত্র সঙ্গে নিয়ে যাবেন।
পরীক্ষাসংক্রান্ত জরুরি নির্দেশনা
  • ১. প্রার্থীদের রেজিস্ট্রেশন নম্বর ৮ ডিজিট–সংবলিত। রেজিস্ট্রেশন নম্বরের ডিজিট উত্তরপত্রের প্রযোজ্য ঘরে কালো কালির বলপয়েন্ট কলম দিয়ে লিখে নিচের প্রযোজ্য বৃত্ত ভরাট করতে হবে।
  • ২. প্রতিটি উত্তরপত্রে সেট নম্বরের নির্ধারিত স্থানে সেট নম্বর এবং সেট নম্বরের জন্য নিচের সংশ্লিষ্ট বৃত্তটি মুদ্রিত থাকবে। কাজেই প্রার্থীদের উত্তরপত্রে সেট নম্বর লেখা এবং সেট নম্বরের বৃত্ত ভরাট করার প্রয়োজন হবে না। সকাল ১০টায় প্রশ্নপত্রপ্রাপ্তির পর প্রার্থী তাঁর প্রশ্নপত্রের সেট নম্বর এবং উত্তরপত্রের সেট নম্বর অভিন্ন কি না, তা চেক করে নিশ্চিত হবেন। প্রশ্নপত্র ও উত্তরপত্রের সেট নম্বর অভিন্ন না হলে সঙ্গে সঙ্গে পরিদর্শককে অবহিত করতে হবে।
  • ৩. প্রবেশপত্রের নিচে মুদ্রিত নির্দেশনা অতি মনোযোগের সঙ্গে পড়ে অনুসরণ করতে হবে।
  • ৪. প্রশ্নপত্র বিতরণের পর (সকাল ১০টা) কোনো প্রার্থীকে পরীক্ষার হলে প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না। প্রশ্নপত্র দেওয়ার পর পরীক্ষা শেষ না হওয়া পর্যন্ত (দুপুর ১২টা) কোনো প্রার্থী পরীক্ষাকক্ষ ত্যাগ করতে পারবেন না।
আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় থাকবেন ১১১ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট
  • ৫. পরীক্ষাকক্ষে পরিদর্শকেরা প্রার্থীর প্রবেশপত্রের ছবি, রেজিস্ট্রেশন নম্বর ও জাতীয় পরিচয়পত্র (প্রয়োজনে) পরীক্ষা করবেন। প্রবেশপত্রে উল্লেখিত রেজিস্ট্রেশন নম্বর ও নাম ঠিকভাবে উত্তরপত্রের যথাস্থানে প্রার্থী লিখেছেন কি না এবং প্রার্থীর প্রবেশপত্র ও হাজিরা তালিকার ছবি অভিন্ন কি না, পরীক্ষান্তে তা নিশ্চিত হয়ে পরিদর্শক হাজিরা তালিকায় প্রার্থীর স্বাক্ষর গ্রহণ করবেন এবং হাজিরা তালিকায় পরিদর্শকের জন্য নির্ধারিত স্থানে পরিদর্শক স্বাক্ষর করবেন। কোনো প্রার্থীর ছবি, স্বাক্ষর, প্রবেশপত্র এবং উত্তরপত্রের নাম, রেজিস্ট্রেশন নম্বরের গরমিলসহ কোনোরূপ অনিয়ম ধরা পড়লে ওই প্রার্থীর প্রার্থিতা বাতিলসহ তাঁর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
  • ৬. পরীক্ষাকেন্দ্রে বই-পুস্তক, সব ধরনের ঘড়ি, মুঠোফোন, ক্যালকুলেটর—সব ধরনের ইলেকট্রনিক ডিভাইস, ব্যাংক কার্ড/ক্রেডিট কার্ডসদৃশ কোনো ডিভাইস, গয়না ও ব্যাগ আনা সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ। বর্ণিত নিষিদ্ধ সামগ্রীসহ কোনো প্রার্থী পরীক্ষার হলে প্রবেশ করতে পারবেন না।
৪৫তম বিসিএসের প্রিলিমিনারিতে ঘাড় ঘোরালেই পরীক্ষা বাতিল
  • ৭. পরীক্ষা হলের গেটে এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট-পুলিশের উপস্থিতিতে প্রবেশপত্র এবং মেটাল ডিটেক্টরের সাহায্যে মুঠোফোন, ঘড়ি, ইলেকট্রনিক ডিভাইসসহ নিষিদ্ধ সামগ্রী তল্লাশির মধ্য দিয়ে প্রার্থীদের পরীক্ষা হলে প্রবেশ করতে হবে।
  • ৮. পরীক্ষার দিন উল্লিখিত নিষিদ্ধ সামগ্রী সঙ্গে না আনার জন্য সব প্রার্থীর মুঠোফোনে এসএমএস পাঠানো হবে। এসএমএস বার্তার নির্দেশনা অনুসরণ করতে হবে।
  • ৯. পরীক্ষার সময় প্রার্থীরা কানের ওপর কোনো আবরণ রাখবেন না, কান খোলা রাখতে হবে। কানে কোনো ধরনের হিয়ারিং এইড ব্যবহারের প্রয়োজন হলে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শপত্রসহ কমিশনের অনুমোদন গ্রহণ করতে হবে।
  • ১০. কোনো প্রার্থী পরীক্ষায় নকল করলে বা মুঠোফোন বা কোনো ধরনের ইলেকট্রনিক ডিভাইসসহ প্রবেশ এবং উক্ত প্রযুক্তির মাধ্যমে কোনো অসদুপায় অবলম্বন করলে বা কোনো অসদাচরণের জন্য দোষী সাব্যস্ত হলে সংশ্লিষ্ট প্রার্থীর বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এ ছাড়া তাঁকে ভবিষ্যতে কমিশন কর্তৃক গৃহীত কোনো নিয়োগ পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে দেওয়া হবে না এবং কমিশন কর্তৃক বিজ্ঞাপিত অন্য কোনো পদের জন্য তিনি আবেদন করতে পারবেন না। প্রয়োজনে মামলা করে আইন প্রয়োগকারী সংস্থার হাতে ওই প্রার্থীকে সোপর্দ করা হবে।
  • ১১. প্রার্থীদের কেন্দ্র পরিবর্তনের কোনো আবেদন বিবেচনা করা হবে না।
৪৫তম বিসিএসের প্রিলিমিনারির আসনবিন্যাস প্রকাশ
  • ১২. অনলাইন আবেদনপত্রে [বিপিসি ফরম-১] প্রার্থী কর্তৃক প্রদত্ত তথ্য এবং ৪৫তম বিসিএস পরীক্ষা-২০২২–এর বিজ্ঞপ্তির ৮.০ নম্বর অনুচ্ছেদ অনুযায়ী প্রদত্ত অঙ্গীকারনামার ভিত্তিতে প্রার্থীকে প্রবেশপত্র প্রদান করা হয়েছে। বিজ্ঞপ্তির ৮.০ নম্বর অনুচ্ছেদের শর্ত পূরণে ব্যর্থ হলে এবং বিজ্ঞপ্তির ৩৩.২, ৩৩.৩ ও ৩৩.৪ নম্বর অনুচ্ছেদের শর্তানুযায়ী কোনো প্রার্থীর আবেদনপত্রে গুরুতর ত্রুটি ধরা পড়লে পরীক্ষার আগে বা পরে যেকোনো পর্যায়ে ওই প্রার্থীর প্রার্থিতা বাতিল হবে।
  • ১৩. ৪৫তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি টেস্টের [এমসিকিউ টাইপ] ওএমআর উত্তরপত্রের দুটি অংশ থাকবে। প্রথম অংশে প্রার্থীর নাম, রেজিস্ট্রেশন নম্বর, সেট নম্বর ও স্বাক্ষরের স্থান থাকবে। দ্বিতীয় অংশে ২০০টি উত্তর প্রদানের জন্য ১-২০০ পর্যন্ত ক্রম অনুযায়ী বৃত্ত থাকবে।
  • ১৪. প্রার্থীদের বিশেষভাবে সতর্ক করা হলো যে উত্তরপত্রে রেজিস্ট্রেশন নম্বর ঠিকভাবে না লিখলে ও ঠিকভাবে বৃত্ত পূরণ না করলে, কোনো কাটাকাটি করলে, উত্তরপত্রে ফ্লুইড লাগালে, কোনো সাংকেতিক চিহ্ন প্রদান করলে তাঁর প্রার্থিতা বাতিল হবে।
  • ১৫. এ পরীক্ষায় মোট ২০০টি এমসিকিউ টাইপ প্রশ্ন থাকবে। প্রার্থী প্রতিটি শুদ্ধ উত্তরের জন্য ১ নম্বর পাবেন, তবে ভুল উত্তর দিলে প্রতিটি ভুল উত্তরের জন্য মোট প্রাপ্ত নম্বর থেকে ০.৫০ নম্বর করে কাটা হবে। পরীক্ষার জন্য পূর্ণ সময় দুই ঘণ্টা।
প্রিলিমিনারির শেষ সময়ের প্রস্তুতি
  • ১৬. প্রতিবন্ধী প্রার্থীর শ্রুতলেখক প্রয়োজন হলে প্রার্থীর আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে কমিশন থেকে শ্রুতলেখক নিয়োগের ব্যবস্থা করা হবে। কমিশনের মনোনীত শ্রুতলেখক ছাড়া অন্য কাউকে শ্রুতলেখক হিসেবে পরীক্ষার হলে আনা হলে তা গ্রহণযোগ্য হবে না। শ্রুতলেখকদের ক্ষেত্রে প্রতি ঘণ্টার পরীক্ষার জন্য ১০ মিনিট অতিরিক্ত সময় দেওয়া হবে।
  • ১৭. প্রবেশপত্র ছাড়া কোনো প্রার্থী পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারবেন না। কোনো প্রার্থীর প্রবেশপত্র হারিয়ে গেলে/চুরি বা নষ্ট হয়ে গেলে এবং ইউজার আইডি/পাসওয়ার্ড ভুলে গেলে কমিশনের ওয়েবসাইটে অ্যাডমিট কার্ড মেনুতে ক্লিক করলে ইউজার রিকোভারি ও পাসওয়ার্ড রিকোভারি অপশন দেখা যাবে। ওই অপশনে ক্লিক করে প্রয়োজনীয় তথ্য দিয়ে সাবমিট করলে প্রয়োজনীয় ও কাঙ্ক্ষিত তথ্যাবলি পাওয়া যাবে। প্রবেশপত্র ডাউনলোড করে প্রিন্ট করা যাবে।
  • ১৮. ইংরেজি ভার্সনের প্রশ্নপত্রে পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য অপশনদানকারী প্রার্থীদের জন্য প্রশ্নপত্র, উত্তরপত্র, হাজিরা তালিকা মুদ্রণসহ সব কার্যক্রম চূড়ান্ত হওয়ায় ভার্সন পরিবর্তনের সুযোগ না থাকায় ইংরেজির পরিবর্তে বাংলা ভার্সনে পরীক্ষা দেওয়ার কোনো সুযোগ নেই।

পিএসসির তথ্যমতে, ৪৫তম বিসিএসে আবেদন করেছেন ৩ লাখ ৪৬ হাজার প্রার্থী। ৪৫তম বিসিএসের মাধ্যমে মোট ২ হাজার ৩০৯ জন ক্যাডার নেওয়া হবে। নন-ক্যাডারে নেওয়া হবে ১ হাজার ২২ জনকে।

বিসিএসে নকলে সহায়তা ও গোলযোগে কঠোর হবে পিএসসি
৪৫তম বিসিএসে ২ হাজার ৩০৯ ক্যাডারের মধ্যে সবচেয়ে বেশি নিয়োগ হবে চিকিৎসায়। সহকারী ও ডেন্টাল সার্জন মিলিয়ে ৫৩৯ জনকে নিয়োগ দেওয়া হবে। চিকিৎসার পর সবচেয়ে বেশি শিক্ষা ক্যাডারে নিয়োগ পাবেন ৪৩৭ জন। এরপর পুলিশে ৮০, কাস্টমসে ৫৪ ও প্রশাসনে ২৭৪ জনকে নিয়োগ দেওয়া হবে।