ঢাকাবৃহস্পতিবার , ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
  • অন্যান্য
আজকের সর্বশেষ সবখবর

মাছের জন্য বিখ্যাত ঐতিহ্যবাহী পোড়াদহ মেলায় লাখো মানুষের পদচারণায় মুখরিত

স্টাফ রিপোর্টার
ফেব্রুয়ারি ১৬, ২০২৩ ৬:০৪ পূর্বাহ্ণ । ২২২ জন

বগুড়ায় শুরু হয়েছে ঐতিহ্যবাহী পোড়াদহ মেলা। মাছের জন্য বিখ্যাত এই প্রাচীন মেলায় লাখো মানুষের পদচারণায় মুখরিত মেলা প্রাঙ্গণ। উত্তরাঞ্চলের বৃত্ততম এ লোকজ-মেলায় উঠেছে বাঘাইড়, রুই,কাতলা,বৃগেট, মৃগেলসহ বড় বড় নানা জাতের মাছ। মেলা ঘিরে গাবতলী উপজেলার গ্রামগুলোয় এখন উৎসবের আমেজ।

মেলা থেকে পছন্দের মাছ ছাড়াও প্রয়োজনীয় পণ্য কিনছেন দর্শনার্থীরা। এক দিনের এই মেলায় মাছসহ ২০ কোটি টাকার বেশি বেচাকেনা হবে বলে জানিয়েছেন আয়োজকরা। বুধবার থেকে শুরু হয়েছে এই মেলা। সকাল থেকেই এ মেলায় ভিড় জমান সব বয়সী মানুষ। ক্রেতা-বিক্রেতাদের কোলাহলে মুখর হয়ে উঠে বগুড়ার গাবতলীর পোড়াদহের প্রাঙ্গণ।

সাজানো দোকানে বড় বড় আকৃতির মাছ নিয়ে বসেন ব্যবসায়ীরা। মেলায় বগুড়ার পাশাপাশি রাজশাহী, চট্টগ্রামসহ বিভিন্ন এলাকার ব্যবসায়ীরা নানা জাতের মাছ নিয়ে এসেছেন। মেলায় প্রতি কেজি মাছের দাম হাঁকছেন তিনশ থেকে দুই হাজার টাকা। তবে বিক্রয় নিষিদ্ধ বাঘাইড় মাছ নিয়ে বেকায়দায় পড়েন এক ব্যবসায়ি। মাছ গুলো জব্দ করে প্রশাসন।

মেলায় মাছের দাম বেশি হলেও মেলায় ক্রেতাদের আগ্রহের কমতি নেই। স্থানীয় রীতি অনুযায়ী এই মাছ দিয়ে আজ জামাই মেয়ে আর অতিথিদের আপ্যায়ন করবেন আশেপাশের এলাকার মানুষ। মেলার এক ক্রেতা জানান,এবারের মেলা থেকে একটি আইড় মাছ কেনা হয়েছে,যার দাম প্রায় নয় হাজার টাকা। সেখানকার বিক্রেতারা জানান, এবারের মেলায় প্রচুর মাছ আমদানি হয়। যা গতবারের চেয়ে দুই থেকে তিনগুণ বেশি মাছ।

মেলার আরেক আকর্ষণ মিষ্টি। প্রচলিত মিষ্টির বাইরে মাছ আকৃতির মিষ্টি নিয়ে এসেছেন বিক্রেতারা। একেকটি মিষ্টির ওজন ৫ থেকে ১০ কেজি পর্যন্ত। ৫০০ টাকা কেজি দরে ১০ কেজির এক মিষ্টির দাম পড়ছে ৫ হাজার টাকা।
বিভিন্ন খাবার ছাড়াও শিশুদের খেলনা,তৈজসপত্র,লোকজ ঐতিহ্যের নানা উপকরণও আছে পোড়াদহের মেলায়।
মেলায় আসা দর্শনার্থী সুমি বলেন, “আমি আজ প্রথম বারের মত মেলায় এসেছি,এখান থেকে অনেক কিছু কিনলাম,আমার খুব ভাল লাগলো।”

এদিকে মেলার ঐতিহ্য তুলে ধরে আয়োজক কমিটির সভাপতি বগুডার গাবতলীর মহিষাবন ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল মজিদ বলেন, “এটা ৪০০ বছরের ঐতিহ্যবাহী মেলা,আমাদের এখানে ঈদে মেয়ে-জামাইকে দাওয়াত না দিলেও মেলায় অবশ্যই দাওয়াত দিতে হবে।এই মেলায় বড় বড় মাছ,মিষ্টি,কাঠের আসবাব পত্র,তৈজসপত্র,প্রসাধনী সামগ্রী পাওয়া যায়।এছাড়াও বিনোদনের জন্য বাচ্চাদের খেলনা ও নাগরদোলা ইত্যাদির ব্যাবস্থা আছে। ”

পোড়াদহ মেলায় ১ লাখ মনেরও বেশি মাছ তুলেছে ব্যবসায়িরা। গড়ে ৫০০ টাকা দাম ধরলেও মেলায় প্রায় ৫ কোটি টাকার মাছ বেচাকেনার আশা করছেন তারা।