ঢাকাবৃহস্পতিবার , ২১ সেপ্টেম্বর ২০২৩
  • অন্যান্য

ভেঙে গেল রাজ-পরীর সংসার

অনলাইন ডেস্ক
সেপ্টেম্বর ২১, ২০২৩ ১১:০৪ পূর্বাহ্ণ । ৪১ জন
অবশেষে আনুষ্ঠানিক বিচ্ছেদ রাজ-পরীর

অনেক দিন ধরেই চিত্রনায়িকা পরীমনি ও নায়ক শরিফুল রাজের দাম্পত্য জীবন ভালো যাচ্ছিল না। কয়েক মাস আগে থেকেই আলাদা থাকাও শুরু করেন তারা।

এরইমধ্যে তারা দু’জনই জানিয়েছিলেন, একসঙ্গে আর থাকতে চান না। তাদের বিচ্ছেদটি ছিল সময়ের ব্যাপার মাত্র। আর এবার সেটাই আনুষ্ঠানিক রূপ পেলো। শরিফুল রাজকে ডিভোর্স লেটার পাঠিয়েছেন পরীমনি। আর এর মাধ্যমে দুই তারকার সংসারে বিচ্ছেদের ঘণ্টাটাও বেজে গেল। ১৮ই সেপ্টেম্বর পরীমনি রাজের উদ্দেশ্যে বিচ্ছেদের নোটিশ পাঠান। এরইমধ্যে ডিভোর্স লেটারটিও গণমাধ্যমের হাতে এসেছে। যদিও গতকাল সকাল থেকেই পরীমনি নিজের মোবাইল ফোনটি বন্ধ করে রাখেন। একই অবস্থা রাজেরও।

এদিকে পরীমনির ঘনিষ্ঠ একটি সূত্র জানিয়েছে, পরীমনি আগে থেকেই ডিভোর্সের সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন।

অবশেষে সেটা পরিণতি পেলো। এখন নিজের ছেলে রাজ্য ও ক্যারিয়ারের দিকেই ফোকাস করতে চান তিনি। ২০২২ সালের ১০ই জানুয়ারি প্রকাশ্যে আসে রাজ-পরীর সম্পর্কের খবর। গত বছরের ২২শে জানুয়ারি দুই পরিবারের সদস্যদের উপস্থিতিতে ১০১ টাকার দেনমোহরে ঘরোয়া আয়োজনে তাদের বিবাহ সম্পন্ন হয়। ২১শে জানুয়ারি হয় তাদের গায়ে হলুদের অনুষ্ঠান। চলতি বছরের শুরু থেকেই ভালো যাচ্ছিল না পরীমনি-শরিফুল রাজের সংসার। এর মধ্যে রাজের ফেসবুক থেকে অভিনেত্রী তানজিন তিশা, নাজিফা তুষি ও সুনেরাহ বিনতে কামালের কিছু ছবি ও ভিডিও প্রকাশ্যে আসার পর রাজের সঙ্গে পরীমনির সম্পর্কের আরও অবনতি হয়। তখন পরীমনি বলেন, সংসার জীবনের এ অশান্তি এবং এই ব্লেম গেম থেকে পরিত্রাণ চান তিনি।

 

তিনি এও বলেন, আমি আর রাজের স্ত্রী নই। এই সম্পর্ক টেনে নিতে চাই না। একই সুরে কথা বলেছিলেন রাজও। এদিকে ১০ই আগস্ট ঢাকার একটি পাঁচ তারকা হোটেলে কাছের মানুষদের নিয়ে একমাত্র সন্তানের প্রথম জন্মদিন উদ্‌যাপন করেন পরীমনি। কিন্তু রাজ্য’র প্রথম জন্মদিনের এ আয়োজনে উপস্থিত ছিলেন না রাজ।