ঢাকাবুধবার , ১ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
  • অন্যান্য
আজকের সর্বশেষ সবখবর

বগুড়া ৬ উপ-নির্বাচন :: স্বতন্ত্র প্রার্থী মান্নান আকন্দের অভিযোগ – স্মার্ট চুরি হচ্ছে

অনলাইন ডেস্ক
ফেব্রুয়ারি ১, ২০২৩ ১০:৩০ পূর্বাহ্ণ । ৩০৭ জন
বগুড়া ৬ উপ-নির্বাচন স্বতন্ত্র প্রার্থী মান্নান আকন্দ সার্বিক অবস্থা নিয়ে গণমাগধ্যমে কথা বলসে

বগুড়া-৬ (সদর) আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্দুল মান্নান আকন্দ  কেন্দ্র দখলের অভিযোগ করে বলেছেন, ৭৫ টি কেন্দ্রে এজেন্টদের বের করে দেওয়া হয়েছে। ৮০ থেকে ৮৫ টি কেন্দ্রে ভোটারদের নৌকায় ভোট দিতে জোর করা হচ্ছে। আমি জেলার রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে অভিযোগ দিয়েছি। তিনি বিষয়টি তদন্ত করে দেখছেন বলে জানিয়েছেন।

মান্নান আকন্দ বলেন, যাদের কাছে আমি অভিযোগ দিব তারাই তো এর সাথে জড়িত। উনাদের যখনই বলবেন তখনই উনারা বলবেন দেখতেছি, যাচ্ছি। এই লড়াইয়ে আমি কতক্ষণ টিকতে পারবো এটা আমি জানি না। তবে লড়াই আমি চালিয়ে যাব। রেজাল্ট আমার বিপক্ষে যাবে এটা আমি বুঝতে পারছি।

ভোটারদের উপস্থিতি কম হওয়ার কারণ জানিয়ে মান্নান আকন্দ বলেন, ‘এটার কারণ হলো আওয়ামী লীগ। আওয়ামী লীগ কেন্দ্রে ভীতিকর পরিস্থিতি তৈরি করেছে। ভোটের কোন উৎসব নেই।’

ভোট থেকে সরে যাবেন না জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আমি ভোট থেকে সরে যাব না। ভোট থেকে সরে যায় কাপুরুষেরা। তবে ভোট সুষ্ঠুভাবে হচ্ছে না।’

জেলার রিটার্নিং অফিসার ও জেলা প্রশাসক মোঃ সাইফুল ইসলাম বলেন, ‘আমাদের কাছে যে প্রার্থীরাই অভিযোগ করেছেন আমরা তাৎক্ষনিক ব্যবস্থা নিয়েছি। ভোটের পরিবেশ ভাল এবং সুষ্ঠুভাবে হচ্ছে। এখন পর্যন্ত কোন অনাকাঙ্ক্ষিত বা অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।

তিনি আরও বলেন, বগুড়ার দুটি আসনে প্রতিটি কেন্দ্রে পুলিশ, আনসার সদস্য মোতায়েন রয়েছে।  এছাড়া পুলিশ, এপিবিএন, ব্যাটালিয়ন আনসারের সমন্বয়ে ১৭ টি মোবাইল ফোর্স, ১০টি স্ট্রাইকিং ফোর্স, ১০ প্লাটুন বিজিবি দায়িত্ব পালন করছেন। এর পাশাপাশি জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট, নির্বাহি ম্যাজিষ্ট্রেটগন দায়িত্ব পালন করছেন।

বগুড়া—৬ সদর আসনে আ’লীগ প্রার্থী রাগেবুল আহসান রিপু, জাপার প্রার্থী নুরুল ইসলাম ওমরসহ জাসদ স্বতন্ত্র মিলে ১১ জন। এই আসনে মোট ভোটার রয়েছেন ৪ লাখ ১০ হাজার ৭শত ৪৩ জন।

বগুড়া—৪ (কাহালু—নন্দীগ্রাম আসনে জাসদ প্রার্থী রেজাউল করিম তানসেন, জাপার শাহীন মোস্তফা কামাল ফারুকসহ স্বতন্ত্র মিলে ৯ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এই আসনে মোট ভোটার রয়েছেন ৩ লাখ ২৮ হাজার ৪শ ৬৯ জন।