ঢাকাশনিবার , ১১ মার্চ ২০২৩
  • অন্যান্য

নতুন চেহারার এই দল নিয়ে সামনে এগোতে চান সাকিব

অনলাইন ডেস্ক
মার্চ ১১, ২০২৩ ৫:৫৬ পূর্বাহ্ণ । ৯০ জন
ছবি: সংগৃহীত

বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ডকে হারিয়ে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ শুরু করেছে বাংলাদেশ। আর বাকি দুই ম্যাচেও জয়ের ধারা অব্যাহত রাখার প্রত্যয় বাংলাদেশ অধিনায়ক সাকিব আল হাসানের।
বৃহস্পতিবার চট্টগ্রাম জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে ইংল্যান্ডকে ১৫৬ রানে আটকে দিয়ে ৬ উইকেটের জয় তুলে নেয় বাংলাদেশ। ম্যাচ শেষে চট্টগ্রাম শহরে একটি শোরুম উদ্বোধন করতে গিয়ে টাইগার অধিনায়ক সাকিব বলেন, ‘ইংল্যান্ড অনেক ভালো দল। আমাদের ভালো খেলতে হবে। প্রথম ম্যাচটা ভালো করেছি। পরের ম্যাচগুলোতে ধারাবাহিকতা বজায় রাখার চেষ্টা করব।’ আগামী ১২ এবং ১৪ই মার্চ সিরিজের বাকি দুই ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। ম্যাচ দু’টোর ভেন্যু মিরপুর শেরেবাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়াম।
গত বছর টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট থেকে অবসর নেন বাংলাদেশের ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম ইকবাল। টি-টোয়েন্টি ছেড়েছেন আরেক অভিজ্ঞ খেলোয়াড় মুশফিকুর রহীমও। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজের দলে নেই মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। সিনিয়রদের অনুপস্থিতিতে আশা দেখাচ্ছেন তরুণ ক্রিকেটাররাই।

নতুন চেহারার এই দল নিয়ে সামনে এগোতে চান সাকিব। টাইগার অধিনায়ক বলেন, ‘শুরুটা ভালো হলো। এখন এখান থেকে যেন আমরা সামনের দিকে এগিয়ে যেতে পারি, আমাদের কাজটা সেভাবেই করতে হবে এবং সেই চেষ্টাই করব আমরা। চেষ্টা করব ভালো খেলতে।’
ইংল্যান্ডকে হারানোর ম্যাচে মুখ্য ভূমিকায় ছিলেন নাজমুল হোসেন শান্ত। ৩০ বলে ৫১ রানের ইনিংস খেলে ম্যাচসেরা হন তিনি। তৌহিদ হৃদয়ের সংগ্রহ ১৭ বলে ২৪ রান। ৮ বছর পর জাতীয় দলে ফেরা রনি তালুকদারও খেলেন ১৪ বলে ২১ রানের কার্যকরী ইনিংস। শেষে সাকিবের সঙ্গী হয়ে আফিফ হোসেন ধ্রুব হার না মানা ইনিংসে করেন ১৩ বলে ১৫ রান । সাকিব বলেন, ‘এভাবে কেউ যদি খেলে বা নতুন কেউ যদি দলে এসে নিজেকে মেলে ধরতে পারে, সেটা দল এবং সেই খেলোয়াড়ের জন্য ভালো।’

এর আগে মাত্র একবার টি-টোয়েন্টিতে ইংল্যান্ডের মুখোমুখি হয় বাংলাদেশ। নিরপেক্ষ ভেন্যুতে অনুষ্ঠিত সেই ম্যাচটি হারে টাইগাররা। অর্থাৎ, চট্টগ্রামের ম্যাচটি ইংল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম টি-টোয়েন্টি জয় বাংলাদেশের। সাকিব জানালেন, ঘরে কিংবা বাইরে- সব কন্ডিশনের সঙ্গে মানিয়ে নিতে চায় তার দল। টাইগার অধিনায়ক বলেন, ‘আমরা উইকেট নিয়ে ভাবতে চাই না। কন্ডিশন নিয়ে চিন্তা করতে চাই না। ভালো একটা দল হয়ে উঠতে চাই আমরা। যেকোনো কন্ডিশনের সঙ্গে মানিয়ে নিতে চাই। ভালো দলগুলো এটাই করে।’
ইংল্যান্ড বধের ম্যাচে টাইগার ক্রিকেটারদের বেশ আত্মবিশ্বাসী দেখা যায়। সাকিব জানান, ভয়ডরহীন ক্রিকেট খেলতে চান তারা। এদিন ম্যাচ শেষে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, ‘আমরা যে মনোভাব নিয়ে ম্যাচটি খেলেছি, তা ছিল অসাধারণ। এর চেয়ে বেশি কিছু দলের থেকে চাইতে পারি না। বোলিংয়ে আমরা (প্রথম ১০ ওভারে) কিছুটা চাপে ছিলাম। কিন্তু আমরা আতঙ্কিত হইনি। প্রত্যেকে জানত, তাদের কী করতে হবে। প্রত্যেক বোলার নিজেদের পরিকল্পনায় অটল ছিল। আমার ক্যাচ ছাড়া (জস বাটলারের ক্যাচ মিস) বাদে প্রত্যেকে ভালো ফিল্ডিং করেছে।’
সাকিব বলেন, ‘এভাবেই (আত্মবিশ্বাস নিয়ে) আমরা খেলতে চাই। টি-টোয়েন্টিতে দুশ্চিন্তা না করলে ভালো পারফর্ম করা যায়। এই পরিবেশটাই আমরা ড্রেসিংরুমে তৈরি করার চেষ্টা করছি। আশা করি, আমরা এভাবে চালিয়ে যেতে পারব।’