ঢাকাবৃহস্পতিবার , ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
  • অন্যান্য

কুমার বিশ্বজিত পুত্র নিবিড়ের অবস্থার উন্নতি

অনলাইন ডেস্ক
ফেব্রুয়ারি ১৬, ২০২৩ ৭:১৪ পূর্বাহ্ণ । ১৮৩ জন
কুমার বিশ্বজিত পুত্র নিবিড়

কানাডার টরন্টোয় সড়ক দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত সঙ্গীতশিল্পী কুমার বিশ্বজিতের ছেলে নিবিড় কুমার দে অবস্থা আগের চেয়ে ভালো বলে জানিয়েছেন তার চাচা অভিজিত দে। সেন্ট মাইকেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন নিবিড়কে তিন দফায় অস্ত্রোপচার করা হয়েছে বলে যোগ করে তিনি। 

এদিকে, বুধবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) টরন্টো পৌঁছেছেন কুমার বিশ্বজিত ও তার সহধর্মিনী। মঙ্গলবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) আমেরিকা থেকে এসেছেন নিবিড়ের বোন। নিবিড় টরন্টোর সেনেকা কলেজ বিজনেস বিভাগে পড়াশোনা করছিলেন।

স্থানীয় সময় সোমবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) রাত সাড়ে ১১টার দিকে এ দুর্ঘটনায় আরও তিন বাংলাদেশি শিক্ষার্থী নিহত হন।

তারা হলেন- শাহরিয়ার খান (২০), অ্যাঞ্জেলা বাড়ৈ (২০) ও আরিয়ান দীপ্ত (১৭।

অপরদিকে, বুধবার রাতে সোসাল মিডিয়ায় নিবিড়ের মৃত্যুর গুজব ছড়ালেও ইত্তেফাকের অনুসন্ধানী তার সঠিক খবর পরিবেশিত হয়।

সংশ্লিষ্টরা জানায়, দুর্ঘটনায় কবলিত বিএমডব্লিউ’র লোগোর গাড়িটি চেনার কোনো উপায় নেই! গাড়িটি হাইওয়ে থেকে ছিটকে পরে কংক্রিটের দেয়ালে ধাক্কা লেগে দুমড়ে-মুচড়ে যায় এবং এরপরই আগুন ধরে যায়। ফলে তিন বাংলাদেশি শিক্ষার্থী গাড়ির ভেতরই পোড়ে মারা যান।

তবে গাড়ির লাইসেন্সও নিবিড়ের নামে ছিল না বলে বিশ্বস্থ সূত্র জানা গেছে।

দুর্ঘটনায় নিহত শিক্ষার্থী আরিয়ানের বাবা এ টি এম আলমগীর সাংবাদিকদের বলেন, শুনেছি, ওদের গাড়ির গতি ২০০-এর ওপর ছিল। ও পেছনে বসা ছিল। ও নাকি গাড়িতেই মারা গেছে।

তাছাড়া অপর এক খবরে জানা গেছে, অ্যাঞ্জেলা বাডৈকে দেশের নেওয়ার জন্য তার বাবা বাডৈ তাকে নিতে কানায় এসেছিলেন। কিন্তু এখন মেয়েকে নয়; তার লাশ নিয়ে যেতে হচ্ছে।

পুলিশও ইতোমধ্যে তার ছাড়পত্র দিয়ে দিয়েছে। টরন্টোর বাংলাদেশ কনসাল অফিস ডেথ সার্ঠিফিকেট ইস্যু করার প্রস্তুতি চলছে। এরপরই অ্যাঞ্জেলার স্বদেশ যাত্রা শুরু হবে।

এছাড়াও শাহরিয়ার ও আরিয়ানের লাশ বাংলাদেশে নেওয়ার প্রক্রিয়া ও প্রস্তুতি চলছে।