ঢাকাসোমবার , ৮ মে ২০২৩
  • অন্যান্য

এ গরমে এসি ছাড়াই নিজের ঘর ঠাণ্ডা রাখার কৌশল

অনলাইন ডেস্ক
মে ৮, ২০২৩ ১:৫২ অপরাহ্ণ । ১৯৫ জন
ছবি: সংগৃহীত

দেশের বিভিন্ন এলাকায় বয়ে যাচ্ছে তীব্র তাপপ্রবাহ। ফলে চাপ বেড়েছে এসিতে। কিন্তু এসি চালু করা মানেই মানিব্যাগ খালি করা। তাছাড়া সবার ঘরে এসি থাকেও না। কিন্তু গরমে অতিষ্ঠ জনজীবন। শীতাতপ নিয়ন্ত্রণযন্ত্রের (এসি) উচ্চ খরচ এড়াতে এবং ঘরকে আরও পরিবেশ বান্ধব করতে কিছু দুর্দান্ত টিপস অনুসরণ করতে পারেন।

জেনেনিন কিভাবে এসি ছাড়া ঘর ঠান্ডা রাখবেন-

পর্দায় ঢেকে দিন জানালা
তাপ কমাতে ঘরের ভেতরে চারিপাশে পর্দা লাগিয়ে দিন। দেখবেন এসি ছাড়াই রুম ঠান্ডা হয়ে যাবে। দিনের সবচেয়ে রৌদ্রোজ্জ্বল সময়গুলোতে ছায়া দিতে এবং তাপকে আটকাতে তাই ভুলবেন না।

দিনে বন্ধ রাখুন ইলেক্ট্রিক যন্ত্রপাতি
বড় বড় ইলেক্ট্রিক যন্ত্র তাপ বাড়িয়ে দেয়। যেমন- ওভেন, ওয়াশিং মেশিন, ডিশওয়াশার, আয়রণ, রাইস-কারি কুকার ইত্যাদি। তাই এসব মেশিনের ব্যবহার কমিয়ে দিন, কাপড় ধোয়া বা ওভেনে কিছু করতে হলে সে কাজগুলো সন্ধ্যার পরে করুন।

মোট কথা, অপ্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি বন্ধ এবং আনপ্লাগ করুন। এমনকি ফোনের চার্জার এবং ছোট সরঞ্জামগুলো আপনার বাড়িতে কিছুটা হলেও তাপ তৈরি করতে পারে। তাই তা বন্ধ করুন অথবা আনপ্লাগ করুন। এতে আপনার ঘর ঠান্ডা থাকবে।

বৈদ্যুতিক বাতি নিয়ন্ত্রণে রাখুন
ঘরের বৈদ্যুতিক বাতি কমিয়ে দিন। বেশি ওয়াটের বাল্ব খুলে রাখুন। বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী বাতি লাগিয়ে নিন। খরচও কম হবে, তাপও কম হবে।

চুলা বন্ধ রাখুন
একটি গরম চুলা আপনার ঘরকে উত্তপ্ত করে দিতে যথেষ্ট। তাই কিছু নো-কুক রেসিপি চেষ্টা করুন। যা আপনাকে শীতল করে দেবে এবং আপনার রান্নাঘরে অতিরিক্ত তাপ থেকে মুক্ত করবে।

যদি আপনাকে রান্না করতেই হয়, তা রাতে করুন।

বাড়ির বাইরে ছায়া যোগ করুন
ছাউনি এবং ছায়াযুক্ত গাছ সূর্যকে জানালায় প্রবেশ করতে বাধা দিতে সাহায্য করে। আপনার ঘরগুলোকে শীতল অনুভব করতে তাই জানালায় ছাউনি দিতে পারেন। বাড়ি তৈরির সময় চারিপাশে গাছ লাগিয়ে দিতে পারেন। এ পদ্ধতি আপনার ঘরের সৌর তাপের পরিমাণ ৬৫% পর্যন্ত কমাতে পারে।

তাপমাত্রা কমে গেলে জানালা খুলুন
দিনের বেলা আপনার জানালা বন্ধ রাখুন, যখন রোদের উত্তাপ বেশি হয়। কিন্তু যখন বাইরের তাপমাত্রা ভিতরের বাতাসের চেয়ে কম থাকে, তখন আপনি আপনার জানালা খুলে ঘরে ঠান্ডা বাতাস প্রবেশ করাতে পারেন। ঘরে ঠাণ্ডা বাতাস ধরে রাখা ফ্যান আপনাকে দ্রুত শীতল হতে সাহায্য করবে।

ঘরের দুই পাশে জানালা থাকলে তা খুলে দিন। বিপরীত দিকের জানালা খোলার ফলে ক্রস হাওয়া তৈরি হতে পারে যা দ্রুত ঠান্ডা করতেও সাহায্য করবে।

ন্যাশনাল রিনিউয়েবল এনার্জি ল্যাবরেটরির মতে, বাতাস প্রবেশ করার জন্য একটি ছোট জানালা খোলার চেষ্টা করুন। এটিকে বের হতে দেওয়ার জন্য একটি বড় জানালা খোলার চেষ্টা করুন, যা বাতাসের গতি বাড়াতে পারে এবং আপনার বাড়িকে শীতল অনুভব করতে পারে।

সিলিং ফ্যান চালান
সিলিং ফ্যান তাপমাত্রা কমাতে সাহায্য করে। এটি ঘরকে শীতল অনুভব করতে সাহায্য করে। শুধু নিশ্চিত করুন যে আপনার ফ্যানটি শীতল করার জন্য ঘড়ির কাঁটার বিপরীত দিকে ব্লেডের সঙ্গে সেট করা আছে।

মনে রাখবেন, একটি ফ্যান আপনাকে আরামদায়ক করতে পারে, যাদি তার ব্যবহার সঠিকভাবে করা যায়।

পাখার সামনে ঠান্ডা কিছু রাখুন
ঠান্ডা কিছু ঘরকে শীতল করতে সাহায্য করে। পাখার সামনে একটি ঠান্ডা, ভেজা চাদর ঝুলিয়ে রাখুন ঠান্ডা বাতাস পাবেন। ফ্যানের সামনে বরফের কিউব বা একটি বড় বাটিতে বরফ খণ্ড রাখতে পারেন। হিমায়িত পানির বোতল ফ্যানের পিছনে সংযুক্ত করুন, ঘর শীতল হয়ে যাবে।

লতা লাগানোর চেষ্টা করুন
লতা জাতীয় গাছ রোপণ করতে পারেন ঘরের চারিপাশে। লতা দ্রুত বৃদ্ধি পায় এবং শীতল ছায়া প্রদান করে। লতা সূর্যালোককে অবরুদ্ধ করে তাপমাত্রা কমায়, যা বাইরের দেয়ালকে উত্তপ্ত করা থেকে রক্ষা করে।

ঘরে রাখুন ছোট গাছ
ঘরের ভেতর ছোট ছোট গাছ রাখুন। এগুলো যেমন ঘরের সৌন্দর্য বাড়ায় তেমনি তাপমাত্রা কমাতেও সাহায্য করে। গাছ ঘরের ভেতর জমা হওয়া কার্বন ডাই-অক্সাইড শুষে নেয়, ফলে ঘরের তাপমাত্রা তুলনামূলক কম থাকে।

মানিপ্ল্যান্ট, অ্যালোভেরা, অ্যারিকা পাম-জাতীয় গাছ ঘরের সৌন্দর্যবর্ধন ও তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণ, উভয় কাজেই বেশ উপকারী।