ঢাকামঙ্গলবার , ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
  • অন্যান্য
আজকের সর্বশেষ সবখবর

ইনুর স্ত্রী ও জাসদের সহসভাপতি আফরোজা হক মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন

অনলাইন ডেস্ক
ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০২৩ ১০:১৪ পূর্বাহ্ণ । ৫৬ জন

বিএনপির পদত্যাগ করা সংরক্ষিত নারী সংসদ সদস্য রুমিন ফারহানার আসনের উপনির্বাচনে জাসদের সভাপতি হাসানুল হক ইনুর স্ত্রী ও জাসদের সহসভাপতি আফরোজা হক মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। জোটের এই প্রার্থীকে সমর্থন জানিয়েছে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ।

আজ মঙ্গলবার রাজধানীর আগারগাঁওয়ের নির্বাচন ভবনে বেলা সোয়া ১১টায় রিটার্নিং কর্মকর্তা ইসির যুগ্মসচিব মো. আবদুল বাতেনের কাছে মনোনয়নপত্র জমা দেন আফরোজা হক। এ সময় জাসদের সাধারণ সম্পাদক শিরীন আখতারের নেতৃত্বে দলটির নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, সংরক্ষিত আসনের এ উপনির্বাচনে মনোনয়নপত্র জমার শেষ সময় আজ ২৮ ফেব্রুয়ারি। মনোনয়নপত্র বাছাই আগামী ২ মার্চ। প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ সময় ৬ মার্চ। এরপর ২০ মার্চ ভোট হবে। একক প্রার্থী হলে আফরোজা হক বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হবেন।

বিএনপির সাত সংসদ সদস্যের পদত্যাগের পর শূন্য আসনের মধ্যে ছয়টির উপনির্বাচন ১ ফেব্রুয়ারি হয়েছে। এর মধ্যে আওয়ামী লীগ তিনটি, ক্ষমতাসীন জোটের শরিক জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদ একটি, জাতীয় পার্টি একটি এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী একটি আসনে জয় পেয়েছে।

আনুপাতিক প্রতিনিধিত্ব পদ্ধতিতে প্রতি ছয়টি সাধারণ আসনের বিপরীতে একটি সংরক্ষিত আসন পাওয়ার কথা রয়েছে। তবে একাদশ সংসদে জাসদের তিনজন সংসদ সদস্য থাকলেও জাসদ একটি সংরক্ষিত আসন পেয়েছে।

বর্তমানে জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত একটি আসনই ফাঁকা রয়েছে। একাধিক সূত্র জানিয়েছে, শূন্য হওয়া সংরক্ষিত আসনটিতে আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে জাসদের প্রার্থীকে সমর্থন দেওয়া হবে এমন সমঝোতা হয়েছে। জাসদের পক্ষ থেকে দলের সহসভাপতি আফরোজা হককে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে। ফলে তাঁরই নির্বাচিত হওয়ার সম্ভাবনা বেশি।

আফরোজা হক নির্বাচিত হলে জাতীয় সংসদে দম্পতি সংসদ সদস্য সংখ্যা হবে তিন। একাদশ জাতীয় সংসদে থাকা অন্য দুই দম্পতি হলেন—ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন ও তাঁর স্ত্রী লুৎফুন্নেসা খান এবং জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ কাদের ও তাঁর স্ত্রী শরিফা কাদের।

বর্তমান একাদশ সংসদে আরেক দম্পতি ছিলেন কাজী শহিদ ইসলাম পাপুল এবং তাঁর স্ত্রী সেলিনা ইসলাম। এই দম্পতির দুজনই স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য হয়েছিলেন। তবে কুয়েতের আদালতে দণ্ডিত হয়ে সংসদ সদস্য পদ হারান পাপুল। তাঁর স্ত্রী সেলিনা ইসলাম এখনো সংসদ সদস্য।